You Are Here: Home » featured » কুড়িগ্রামের বিশাল উলামা সম্মেলনে পীর সাহেব চরমোনাই : ক্ষমতা নয় আমাদের লক্ষ্য ইসলাম প্রতিষ্ঠা

কুড়িগ্রামের বিশাল উলামা সম্মেলনে পীর সাহেব চরমোনাই : ক্ষমতা নয় আমাদের লক্ষ্য ইসলাম প্রতিষ্ঠা

কুড়িগ্রামের বিশাল উলামা সম্মেলনে পীর সাহেব চরমোনাই : ক্ষমতা নয় আমাদের লক্ষ্য ইসলাম প্রতিষ্ঠা

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমীর মুফতী সৈয়দ মোহাম্মদ রেজাউল করীম (পীর সাহেব চরমোনাই) বলেছেন, ক্ষমতা নয়, আমাদের লক্ষ্য ইসলাম প্রতিষ্ঠা। তিনি উলামায়ে কেরামকে ইসলাম প্রতিষ্ঠায় ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, বর্তমান শাসন ব্যবস্থা আইয়্যামে জাহেলিয়াতকেও হার মানিয়েছে। ঈমান-আমল নিয়ে বেচে থাকাই কঠিন হয়ে পড়েছে। ৯২ শতাংশ মুসলমানের দেশের সংবিধানে আল্লাহর উপর পূর্ণ আস্থা ও বিশ্বাস থাকবে না তা হতে পারে না। সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলমানের দেশে নেতানেত্রীদের নামে কটুক্তি করলে বিচার হয়। আর আমাদের প্রাণের চেয়ে প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সা.-এর বিরুদ্ধে কটুক্তি করলে, ইসলাম ও কুরআন নিয়ে কটুক্তি করলে বিচার হয় না বা বিচারের আইন নেই এর লজ্জাজনক অবস্থা মুসলমানদের জন্য আর কি হতে পারে? তাই আগামী অধিবেশনেই ধর্মদ্রোহীদের শাস্তির আইন পাশ করতে হবে।

শনিবার (২৭ ডিসেম্বর) সকাল ১০টায় ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ কুড়িগ্রাম জেলা আয়োজিত ফজলুল করীম (রহ.) জামিয়া ইসলামিয়া মাদরাসা ময়দানের বিশাল উলামা সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

পীর সাহেব চরমোনাই আরো বলেন, সরকার ঘুষ ও দুর্নীতিকে রাষ্ট্রীয়ভাবে স্বীকৃতি দিয়েছে। সরকারের মন্ত্রী-এমপিদের বক্তব্যে তা ক্রমেই ফুটে উঠেছে। অপরদিকে ছাত্রলীগ ও যুবলীগের তাণ্ডবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো যেনো মিনি ক্যান্টমেন্টে পরিণত হয়েছে। সরকার দলীয় সোনার ছেলেদের লেখাপড়ার প্রয়োজন নেই। এখন তারা টেন্ডারবাজি ও চাঁদাবাজিতে ব্যস্ত।

পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, দেশে নোংরা রাজনীতির চর্চা হচ্ছে বলেই দেশ ভয়াবহ পরিণতিরে দিকে যাচ্ছে। সরকার ও বিরোধীদল মুখোমুখো অবস্থানে। বিরোধী দলের উপর হামলা কোনো সুস্থ রাজনৈতিক ধারা হতে পারে না। কাজেই নোংরা রাজনীতি পরিহার করে ইসলামের সুশীতল ছায়াতলে সকলকে ফিরে আসতে হবে। অশান্ত এই দেশে কুরআন-সুন্নাহ’র আইন ছাড়া শান্তি ফিরে আসবে না।

তিনি আরো বলেন, ইসলামী শক্তিগুলো শতধা বিভক্তির কারণে এবং তাগুতি শক্তির ক্রীড়নকের কারণে তাগুতি ও আল্লাহদ্রোহী শক্তিগুলো আমাদের মাথার উপরে জেঁকে বসেছে। নীতি ও আদর্শ জলাঞ্জলী দিয়ে অনেকে ইসলামের বিজয় করতে চান। তাগুতের সাথে সংমিশ্রণ করে এবং নারী নেতৃত্বের দ্বারা ইসলাম বিজয়ের ইতিহাস নেই। দেশের যে দূরাবস্থা চলছে তাতে উলামায়ে কেরামগণকে নীতি ও আদর্শের প্রশ্নে আপোসহীন থাকতে হবে। প্রচলিত আদর্শ বিবর্জিত রাজনীতির করালগ্রাস থেকে ফিরে এসে আদর্শ রাজনীতি প্রবর্তন এবং রাজনীতিতে গুণগত পরিবর্তনে হযরত উলামায়ে কেরামকে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ও নির্দেশনা দিতে হবে।

জেলা সভাপতি মাওলানা মুস্তাফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উলামা সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য আল্লামা নুরুল হুদা ফয়েজী, কেন্দ্রীয় নেতা কেএম আতিকুর রহমান, মুহাদ্দিস মাওলানা আব্দুল জলিল, মাওলানা আবদুর রহমান কাসেমী, মাওলানা নুরে আলম সিদ্দিকী, মাওলানা মোকসেদুর রহমান, মাওলানা শফিউল্লাহ মাহমুদি।

Comments

comments

About The Author

কপিরাইট © ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ২০১১ সকল স্বত্ব সংরক্ষিত

Scroll to top