You Are Here: Home » featured » নতুন প্রজন্মকে ইসলাম থেকে দূরে রাখার চক্রান্ত করা হচ্ছে -অধ্যক্ষ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ

নতুন প্রজন্মকে ইসলাম থেকে দূরে রাখার চক্রান্ত করা হচ্ছে -অধ্যক্ষ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ

নতুন প্রজন্মকে ইসলাম থেকে দূরে রাখার চক্রান্ত করা হচ্ছে -অধ্যক্ষ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ

মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্ম কাউন্সিল ও ইসলামী মুক্তিযোদ্ধা পরিষদ এর যৌথ উদ্যোগে শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর পুরানা পল্টনস্থ আইএবি মিলনায়তনে আলোচনা সভা ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মেহের উদ্দীন চেয়ারম্যনসহ মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহনকারী মুক্তিযোদ্ধাদের রুহের মাগফেরাত কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর মহাসচিব অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ বলেন, একটি গোষ্টি ইসলাম ও মুক্তিযুদ্ধকে মুখোমুখি করে নতুন প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার কথা বলে ইসলাম থেকে দূরে রাখার নানামূখী চক্রান্তে মেতে উঠেছে। শাহজালাল, শাহপরান, শাহমাখদুম, সৈয়দ ফজলুল করীম রহ.সহ অসংখ্য পীর আউলিয়ার এ বাংলায় ইসলাম নিয়ে কোনো চক্রান্ত দেশপ্রেমিক জনতা বাস্তবায়ন করতে দিবে না। তিনি দেশপ্রেমিক মুক্তিযোদ্ধা এবং নতুন প্রজন্মকে ইসলাম বিরোধীদের ষঢ়যন্ত্র নস্যাৎ করতে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান।

ইসলামী মুক্তিযোদ্ধা পরিষদ এর আহবায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আবুল কাশেম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্ম কাউন্সিল এর চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম কবির, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন এর কেন্দ্রীয় সভাপতি অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর ঢাকা মহানগর সভাপতি অধ্যাপক মাওলানা এটিএম হেমায়েত উদ্দীন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর ঢাকা মহানগর সেক্রেটারী মুহাম্মদ আবু সাঈদ সিদ্দিকী, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল ওয়াদুদ, মাওলানা আরিফ বিন মেহের উদ্দীন, ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনের ঢাকা মহানগর সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা হারুন অর রশীদ প্রমূখ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্ম কাউন্সিল এর মহাসচিব মুহাম্মাদ নূরুজ্জামান সরকার।

ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন এর কেন্দ্রীয় সভাপতি অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন বলেন, ১৯৭১ এ মানুষের মৌলিক অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য যে মুক্তিযুদ্ধ হয়েছিল স্বাধীনতার ৪২ বছর পরেও মানুষের সে মৌলিক অধিকার প্রতিষ্ঠা হয়নি। তিনি বলেন, ইসলামী হুকুমত প্রতিষ্ঠা ছাড়া মানুষের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব নয়।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর ঢাকা মহানগর সভাপতি অধ্যাপক এটিএম হেমায়েত উদ্দীন বলেন, ইসলামী বিধি বিধানকে মান্য করে রাষ্ট্র পরিচালনা না করার কারনে সমাজে অশান্তি বৃদ্ধি পাচ্ছে। স্বাধীনতাকে অর্থবহ করতে হলে
বিশ্বাসঘাতক, বেঈমান, সাম্রাজ্যবাদের পা চাটা গোলামদেরকে গণরায়ের মাধ্যমে পরাজিত করে একটি কল্যাণ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় আল্লাহকে রাজী ও খুশি করতে ত্যাগের দৃষ্টান্ত নিয়ে ময়দানে ঝাপিয়ে পড়তে হবে।

মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্ম কাউন্সিল এর চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম কবির বলেন, একটি গোষ্ঠি ইসলাম পন্থীদেরকে মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী আখ্যা দিয়ে এদেশ থেকে ইসলামকে নিশ্চিহ্ন করতে চেয়েছিল, কিন্তু তাতে তারা ব্যর্থ হয়ে এখন ইসলাম পন্থীদেরকে জঙ্গিবাদের অপবাদ দিয়ে এদেশ থেকে ইসলামকে নিশ্চিহ্ন করতে চায়। বিশ্বের ২য় বৃহত্তম মুসলিম দেশ বাংলাদেশে ইসলামের বিরুদ্ধে কোনো রকম চক্রান্ত মুক্তিযোদ্ধার সন্তানরা বাস্তবায়ন হতে দিবে না, ইনশাআল্লাহ।

Comments

comments

About The Author

Leave a Comment

কপিরাইট © ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ২০১১ সকল স্বত্ব সংরক্ষিত

Scroll to top