You Are Here: Home » featured » ব্লগার ইমরানের ঔদ্ধত্যে স্তম্ভিত দেশবাসী!!! প্রধানমন্ত্রীর উচিত পদত্যাগ করে ইমরানের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করা -ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ

ব্লগার ইমরানের ঔদ্ধত্যে স্তম্ভিত দেশবাসী!!! প্রধানমন্ত্রীর উচিত পদত্যাগ করে ইমরানের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করা -ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ

ব্লগার ইমরানের ঔদ্ধত্যে স্তম্ভিত দেশবাসী!!! প্রধানমন্ত্রীর উচিত পদত্যাগ করে ইমরানের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করা     -ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ

  গতকাল মিডিয়ায় প্রদত্ত ড. ইমরান এইচ সরকারের ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্যে স্তম্ভিত দেশবাসী। ‘সরকারের চেয়ে শাহবাগের শক্তি বেশি’ এ ধরনের বক্তব্যের পর প্রধানমন্ত্রীকে পদত্যাগ করে ইমরানের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করা উচিৎ বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর প্রেসিডিয়াম সদস্য প্রিন্সিপাল মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল মাদানী। আজ বিকেলে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর কেন্দ্রীয় মজলিশে আমেলার জরুরী সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথা বলেন। পুরানা পল্টনস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন মহাসচিব অধ্যক্ষ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ, যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান, সহকারী মহাসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, কেন্দ্রীয় নেতা অধ্যাপক মাওলানা এটিএম হেমায়েত উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যাপক সৈয়দ বেলায়েত হোসেন, মাওলানা ইমতিয়াজ আলম, আলহাজ্ব হারুনুর রশীদ, কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক মাওলানা আহমাদ আবদুল কাইয়ূম ও সহ প্রচার সম্পাদক কে এম আতিকুর রহমান, প্রিন্সিপাল মাওলানা আতাউর রহমান আরেফী, অধ্যাপক ডা. মোয়াজ্জেম হোসেন, মাওলানা নেছার উদ্দিন প্রমূখ। মাওলানা মাদানী বলেন, দেশময় অশান্তির দাবানল জ্বলছে। আর এজন্য অনেকাংশে শাহবাগের প্রজন্ম মঞ্চই দায়ী। কেননা শাহবাগের চত্বর থেকে দেশব্যাপী পতাকা উত্তোলনসহ বিভিন্ন ফরমান জারি করা হচ্ছে। বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে ছাত্র-ছাত্রীদের ক্লাস বন্ধ রেখে শাহবাগে প্রেরণের জন্য চাপ সৃষ্টি করা হচ্ছে। যুদ্ধাপরাধীর বিরোধীতার নামে দাড়ি, টুপি, ইসলামী রাজনীতি ও ধর্মীয় মূল্যবোধের বিরুদ্ধে বিষোদগার করা হচ্ছে। এসব কারণে জনমনে প্রশ্ন উঠছে বাংলাদেশ সরকারের কেন্দ্র কোনটি গণভবন না শাহবাগ? নেতৃবৃন্দ বলেন, বিভিন্ন জায়গায় ইসলামী আন্দোলনের নেতাকর্মীদের গ্রেফতার ও হয়রানী, মসজিদের ইমাম-মুয়াজ্জিন ও নীরিহ মুসল্লীদের সরকারদলীয় নেতাদের বাসায় ও সংশ্লিষ্ট থানায় ডেকে নিয়ে ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে। অপরদিকে শাহবাগের প্রজন্ম চত্বর থেকে নাস্তিক ব্লগাররা ইসলামপন্থীদের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে বক্তব্য দিচ্ছে। সরকার বাম, রাম ও নাস্তিকদেরকে ইসলামের বিরুদ্ধে লেলিয়ে দিয়েছে। ৯০ ভাগ মুসলমানের দেশে বাম, রাম ও নাস্তিকদের আস্ফালন মেনে নেয়া যায় না। নেতৃবৃন্দ বলেন, সম্প্রতি দেশব্যাপী সহিংসতার সময় বিভিন্ন স্থানে হিন্দু-বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের বাড়ি ঘরে ও ধর্মীয় উপাসনালয়ে হামলা, ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। এসব ঘটনা কোন সভ্য সমাজে কখনও কাম্য নয়। আমরা এ ন্যাক্কারজনক কর্মকান্ডের তীব্র নিন্দা জানাই। সেইসাথে দোষীদের খুজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে সরকারের প্রতি দাবি জানাই। সংখ্যালঘু নির্যাতনকে কেন্দ্র করে ইসলামবিরোধী গোষ্ঠীর সাম্প্রদায়িক উস্কানী সৃষ্টির অপচেষ্টা কোনক্রমেই মেনে নেয়া হবে না। কর্মসূচি ঃ আগামী ০৬ মার্চ বুধবার দুপুর ১২ টায় পুরানা পল্টনস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে পীর সাহেব চরমোনাই বক্তব্য রাখবেন। 

Comments

comments

About The Author

Number of Entries : 673

Comments (2)

Leave a Comment

কপিরাইট © ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ২০১১ সকল স্বত্ব সংরক্ষিত

Scroll to top