You Are Here: Home » featured » যাকাত ভিত্তিক অর্থ ব্যবস্থা প্রবর্তনের মাধ্যমেই দারিদ্র বিমোচন সম্ভব -অধ্যক্ষ মাও. ইউনুছ আহমাদ

যাকাত ভিত্তিক অর্থ ব্যবস্থা প্রবর্তনের মাধ্যমেই দারিদ্র বিমোচন সম্ভব -অধ্যক্ষ মাও. ইউনুছ আহমাদ

যাকাত ভিত্তিক অর্থ ব্যবস্থা প্রবর্তনের মাধ্যমেই দারিদ্র বিমোচন সম্ভব -অধ্যক্ষ মাও. ইউনুছ আহমাদ

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর মহাসচিব অধ্যক্ষ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ বলেছেন, যাকাত ভিত্তিক অর্থ ব্যবস্থা প্রবর্তনের মাধ্যমেই দারিদ্র বিমোচন সম্ভব। বর্তমান সরকার দারিদ্র বিমোচনে অনেক কর্মসুচী গ্রহণ করলেও আমাদের দেশের মানুষ দারিদ্র সীমার নিচে বসবাস করছে। বর্তমান অর্থ ব্যবস্থায় গরীবরা আরো গরীব হচ্ছে কেনোনা সুদ দেয় গরিবরা, সুদ খায় ধনীরা। এতে প্রমাণ প্রচলিত অর্থ ব্যবস্থার মাধ্যমে ধনীরা ধনী হয় আর গরিবরা নিঃস্ব হয়। প্রকারান্তরে যাকাত ভিত্তিক অর্থ ব্যবস্থায় যাকাত দেয় ধনীরা, আর যাকাত নেয় গরিবরা। ফলে ভারসাম্যপূর্ণ সমাজ ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠায় অনেক কার্যকর। কাজেই ইসলামী অর্থ ব্যবস্থা প্রবর্তনের বিকল্প নেই।

মাওলানা ইউনুছ আহমাদ আরো বলেন, ফিলিস্তিনের মজলুম মুসলমানের পক্ষে বিশ্ব মুসলিমকে ঐক্যবদ্ধভাবে ময়দানে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে। সাথে সাথে ইহুদি পণ্য বর্জন করে ফিলিস্তিনী মুসলমানদের পক্ষে ইসলামী জিহাদে শরীক হতে হবে। বিশ্বব্যাপী প্রতিবাদের আগুন জ্বলে উঠেছে। ইসরাইল হামলা বন্ধ না করলে প্রতিবাদের আগুনে জ্বলে পুড়ে ছাই হয়ে যাবে।

মঙ্গলবার বিকেলে যাত্রাবাড়ী থানা শাখা আয়োজিত ‘ইসলামী সমাজ গঠনে সিয়ামের ভূমিকা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

যাত্রাবাড়ীর নীরব কমিউনিটি সেন্টারে সংগঠনের যাত্রাবাড়ী থানা সভাপতি আলহাজ্ব ইসমাঈল হোসেনের সভাপতিত্বে এবং সেক্রেটারি মু. আব্দুল খালেক হাওলাদারের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত ইফতার মাহফিলে বিশেষ অতিথি ছিলেন মহানগর সভাপতি অধ্যাপক মাওলানা এটিএম হেমায়েত উদ্দিন, নগর সেক্রেটারি মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ুম, প্রচার সম্পাদক মাওলানা এইচ এম সাইফুল ইসলাম। বক্তব্য রাখেন মাওলানা ওবায়দুল্লাহ, হাফেজ মু. সালাহ উদ্দিন, মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন আনসারী, মাওলানা ছফিউল্লাহ লহরী, শ্রমিক নেতা মোফাজ্জল হোসেন নান্নু মুন্সিসহ থানা নেতৃবৃন্দ ও স্থানীয় উলামায়ে কেরাম।

অধ্যাপক মাওলানা এটিএম হেমায়েত উদ্দিন বলেন, পার্থিব লোভ-লালসা পরিহার করে ইসলাম প্রতিষ্ঠার জন্য নিবেদিত প্রাণ হয়ে কাজ করার মধ্যেই মাহে রমজানের স্বার্থকতা নিহিত। তিনি বলেন, মনের পশুকে পরাভুত করতে না পারলে রমজান আমাদেরকে কিছুই দিতে পারবে না। তিনি রমজানের শিক্ষা গ্রহণ করে সে আলোকে নিজ পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্র পরিচালনাল সংগ্রামে ব্রত হওয়ার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

রমনা থানার ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত:
ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন-এর কেন্দ্রীয় সভাপতি অধ্যাপক মু. আশরাফ আলী আকন বলেছেন, শ্রমিকরা আজ চরম অবহেলিত, নিষ্পেষিত। অনেক মালিক কারখানা বন্ধ করে চলে গেছে শ্রমিকদের বেতন-বোনাস না দিয়ে। ঈদের আগে ২৫ রোজার মধ্যে শ্রমিকদের বেতন বোনাস দিতে হবে। অন্যথায় শ্রমিকরা মাঠে নেমে আসলে দেশ ও জাতির জন্য কল্যাণ হবে না।

মঙ্গলবার বিকেলে ঢাকা মহানগরীর রমনা থানা ইসলামী আন্দোলনের আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মালিবাগ শহিদী মসজিদ মিলনায়তনে সংগঠনের থানা সভাপতি আলহাজ্ব আবদুস সাত্তার মুন্সির সভাপতিত্বে এবং সেক্রেটারি মাওলানা মু. ইউনুছ তালুকদারের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকা মহানগর সহ-সভাপতি মাওলানা এবিএম জাকারিয়া, মু. নুরুজ্জামান সরকার। অন্যান্যের মধ্যে থানা নেতৃবৃন্দ ও উলামায়ে কেরাম বক্তব্য রাখেন।

Comments

comments

About The Author

কপিরাইট © ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ২০১১ সকল স্বত্ব সংরক্ষিত

Scroll to top