You Are Here: Home » সংগঠন সংবাদ » ২০ অক্টোবর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের গণসমাবেশ সফলে ঢাকা মহানগরীর বিভিন্ন থানায় গণসংযোগ

২০ অক্টোবর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের গণসমাবেশ সফলে ঢাকা মহানগরীর বিভিন্ন থানায় গণসংযোগ

২০ অক্টোবর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের গণসমাবেশ সফলে ঢাকা মহানগরীর বিভিন্ন থানায় গণসংযোগ

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর সভাপতি অধ্যাপক হাফেজ মাওলানা এটিএম হেমায়েত উদ্দিন বলেছেন, লতিফ সিদ্দিকীর সর্বোচ্চ শাস্তি বাংলার মাটিতে হবেই। মুরতাদ লতিফ যেভাবে ইসলামকে আঘাত করেছে তার চেয়েও বেশি আঘাত তাকে করা হবে। কোনো নাস্তিক-মুরতাদ তার পক্ষে উকালতি করলে তাদেরও ছাড় দেয়া হবে না। কলকাতা নাস্তিক-মুরতাদদের আশ্রয়স্থল হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে। মুসলমানদের আঘাত করলেই কলকাতা তাদেরকে আশ্রয় দেয়।

তিনি আরো বলেন, তাকে মন্ত্রী পরিষদ থেকে অপসারণই কেবল শেষ নয়, অবিলম্বে গ্রেফতার ও দৃস্টান্তমুলক শাস্তি দিতেই হবে। দেশে না আসলে তার নাগরিকত্ব বাতিলসহ তার সকল সম্পদ বাজেয়াপ্ত করতে হবে। ইসলাম ও মুসলিম উম্মাহর বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে তসলিমা নাসরিন, দাউদ হায়দার দেশে থাকতে পারেনি। সুতরাং লতিফও এদেশে থাকতে পারবে না।

শুক্রবার লতিফ সিদ্দিকীর গ্রেফতার ও সর্বোচ্চ শাস্তির দাবীতে ২০ অক্টোবর রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অনুষ্ঠিতব্য বিশাল গণসমাবেশ সফলের লক্ষ্যে রাজধানীর শেরে বাংলানগর, মোহাম্মদপুর, আদাবর গণসংযোগকালে তিনি এসব কথা বলেন।

সংগঠনের ঢাকা মহানগর সেক্রেটারি মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূমও রাজধানীর রায়েরবাগের বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ অব্যাহত রাখেন। জয়েন্ট সেক্রেটারি অধ্যাপক ফজলুল হক মৃধা শ্যামপুর ও জুরাইন, সাংগঠনিক সম্পাদক মু. মোশাররফ হোসাইন দারুসসালাম গণসংযোগ করেন। এসময় ধর্মপ্রাণ জনতার ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা লক্ষ্য করা যায়। ঈমানদার জনতা সোহরাওয়াদী উদ্যানের সমাবেশকে সময়ের সবচেয়ে উপযোগী কর্মসূচী হিসেবে আখ্যায়িত করেন।

এদিকে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা জেলা নেতৃবৃন্দ বলেছেন, সরকারের সদ্য অপসারিত মন্ত্রী মুরতাদ লতিফ সিদ্দিকীর সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত ঈমানদার জনতার আন্দোলন চলবেই। ঈমানদার জনতার হৃদয়ে প্রতিবাদের আগুন জ্বালিয়েয়ে মুরতাদ লতিফ, সেই আগুনে তাকে জ্বলেপুড়ে ছাই করে দিবে। অবিলম্বে তাকে গ্রেফতারের কার্যকরি উদ্যোগ নিয়ে সরকারকে কাজ করতে হবে।

শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা জেলার শাখার মজলিসে আমেলার সভায় নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন।

সংগঠনের জেলা সভাপতি আলহাজ্ব সৈয়দ আলী মোস্তফার সভাপতিত্বে এবং সেক্রেটারি আলহাজ্ব মোঃ শাহাদাত হোসাইনের পরিচালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সহ-সভাপতি আলহাজ্ব হানিফ মিয়া মেম্বার, জয়েণ্ট সেক্রেটারি অধ্যাপক ডা. মোঃ কামরুজ্জামান, সাংগঠনিক সম্পাদক মু. হাসমত আলী, প্রচার সম্পাদক মুফতী আব্দুল করীম, মাওলানা নুর হোসাইন, দপ্তর সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, আলহাজ্ব আব্দুর রাজ্জাক বেপারী, মাওলানা কামাল উদ্দিন, প্রকৌশলী গোলাম মোস্তফা, মোঃ আবু বকর, আলহাজ্ব হাফেজ জয়নাল আবেদীন, মুফতী আলআমিন প্রমুখ।

নেতৃবৃন্দ আগামী ২০ অক্টোবর পীর সাহেব চরমোনাই আহুত রাজধানীর সোহরাওয়াদী উদ্যানে অনুষ্ঠিতব্য বিশাল গণসমাবেশ যে কোনো মূল্যে সফল করার আহ্বান জানান।

Comments

comments

About The Author

কপিরাইট © ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ২০১১ সকল স্বত্ব সংরক্ষিত

Scroll to top