You Are Here: Home » সারাদেশ » ৩১ অক্টোবরের আগ্রাবাদ জাম্বুরি ময়দানে মহাসমাবেশ সফলে গণর‌্যালিতে বক্তারা : কর্মসূচিতে বাধা দিয়ে ধর্মবিদ্বেষীদের বাঁচানো যাবে না

৩১ অক্টোবরের আগ্রাবাদ জাম্বুরি ময়দানে মহাসমাবেশ সফলে গণর‌্যালিতে বক্তারা : কর্মসূচিতে বাধা দিয়ে ধর্মবিদ্বেষীদের বাঁচানো যাবে না

৩১ অক্টোবরের আগ্রাবাদ জাম্বুরি ময়দানে মহাসমাবেশ সফলে গণর‌্যালিতে বক্তারা : কর্মসূচিতে বাধা দিয়ে ধর্মবিদ্বেষীদের বাঁচানো যাবে না

৩১ অক্টোবর ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর মহাসমাবেশের সফল করার লক্ষ্যে এক গণর‌্যালিতে নেতৃবৃন্দ বলেছেন, কর্মসূচিতে বাধা দিয়ে ধর্মবিদ্বেষীদের বাঁচানো যাবে না। হামলা-মামলা ও মহাসমাবেশের অনুমতি দিতে গড়িমসি করে সরকার প্রমাণ করেছে তারা নাস্তিক্যবাদীদের সহযোগী।

চট্টগ্রাম দেওয়ানহাটস্থ দলীয় কার্যালয় চত্বর থেকে নগরব্যাপী মোটর গণর‌্যালিপূর্ব সমাবেশে নগর নেতৃবৃন্দ একথা বলেন।

কেন্দ্রীয় কৃষি ও শ্রম বিষয়ক সম্পাদক, ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় সিনিয়র সহ-সভাপতি ও চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি আলহাজ জান্নাতুল ইসলাম বলেন, ধর্মবিদ্বেষের বিরুদ্ধে গণজোয়ার দেখে সরকার ভীত-সন্ত্রস্ত হয়ে পড়েছে। মহাসমাবেশের পূর্ব নির্ধারিত ঐতিহাসিক লালদিঘী ময়দানে সমাবেশের অনুমতি না দিয়ে সরকার কাপুরুষোচিত মনোভাবের পরিচয় দিয়েছে। আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। যত হামলা-বাধা-বিপত্তি আসুক না কেনো নাস্তিক্যবিরোধী গণজোয়ার কিছুতেই স্তব্ধ করা যাবে না।

জননেতা আলহাজ জান্নাতুল ইসলাম ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আদর্শের বর্ণনা করে বলেন, আমরা অহিংস আন্দোলনে বিশ্বাসী। মানুষের জান-মাল ও আইন-শৃঙ্খলা বিঘ্নিত হয় এমন কোনো কর্মসূচি আজ পর্যন্ত ইসলামী আন্দোলন পালন করেনি। পুলিশ আমাদের শত্রু নয়, ক্ষমতা আমাদের মূল লক্ষ্য নয়। প্রধানমন্ত্রীর অবমাননা হলে যেমন শাস্তি হয় আমরাও চাই ধর্ম অবমাননার শাস্তির বিধান জাতীয় সংসদে পাস করুন। তা না হলে ৩১ অক্টোবরের গণজোয়ার থেকে কঠিন জবাব দেওয়া হবে, ইনশআল্লাহ।

সভায় নেতৃবৃন্দ হিসেবে সংবিধানের মূলনীতিতে ‘আল্লাহর ওপর আস্থা ও বিশ্বাস’ পুনঃস্থাপন, ফিলিস্তিন-আরাকানসহ সারা বিশ্বের নানা প্রান্তে মুসলিম উম্মাহর বিরুদ্ধে পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদ, অবিলম্বে নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচন, নাস্তিক্য ও ধর্মবিদ্বেষের বিরুদ্ধে সংসদে আইন পাস এবং দেশের স্থায়ী শান্তি ও মুক্তির লক্ষ্যে ইসলামী শাসনতন্ত্র প্রতিষ্ঠার দাবীতে ৩১ অক্টোবর ২০১৪ (শুক্রবার) চট্টগ্রাম আগ্রাবাদস্থ ঐতিহাসিক জাম্বুরি ময়দানে বেলা ২ ঘটিকা থেকে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের চট্টগ্রাম বিভাগীয় মহাসমাবেশ সফল ও সার্থক করার জন্য সর্বস্তরের তৌহিদী জনতার প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানান।

পীর সাহেব চরমোনাইয়ের চট্টগ্রাম আগমন উপলক্ষ্যে কর্মসূচিঃ
১. চট্টগ্রাম বিভাগীয় মহাসমাবেশ: ৩১ অক্টোবর (শুক্রবার) বেলা ২ ঘটিকায় চট্টগ্রাম আগ্রাবাদস্থ ঐতিহাসিক জাম্বুরি ময়দানে চট্টগ্রাম বিভাগীয় মহাসমাবেশ।
২. ওয়াজ মাহফিল ও হালাকায়ে জিকির: ৩০ অক্টোবর (বৃহস্পতিবার), বেলা ৩ ঘটিকায়, সীতাকুন্ড উত্তর বাজারে সীতাকুন্ড থানা মুজাহিদ কমিটি ও পৌরবাসীর উদ্যোগে বিশাল ওয়াজ মাহফিল ও হালকায়ে জিকির।
৩. ওয়াজ মাহফিল ও হালাকায়ে জিকির: ৩১ অক্টোবর (শুক্রবার) বেলা ২ ঘটিকায় বোলালখালী খরন্দ্বীপ ইসলামী যুব কাফেলার উদ্যোগে মুন্সিপাড়া ওয়াহেদিয়া আজিজুল উলুম মাদরাসা ময়দানে বিশাল ওয়াজ মাহফিল ও হালকায়ে জিকির।
৪. ওয়াজ ও দস্তারবন্দি মাহফিল: ৩১ অক্টোবর (শুক্রবার) বেলা ৪ ঘটিকায় চট্টগ্রাম কদমতলী ধনিয়ালাপাড়াস্থ বায়তুল আমান আদর্শ বালক-বালিকা মাদরাসা ও হেফজখানার ১০ম বার্ষিক ওয়াজ ও দস্তারবন্দি মাহফিল।

উপরে উল্লেখিত জনসভা ও মাহফিলসমূহে পীর সাহেব চরমোনাই পর্যায়ক্রমে প্রধান অতিথি হিসেবে তাশরীফ রাখবেন এবং দেশ ও জাতির উদ্দেশ্যে গুরুত্বপূর্ণ দিকনির্দেশনামূলক বয়ান ও নসিহত পেশ করবেন, ইনশআল্লাহ।

Comments

comments

About The Author

কপিরাইট © ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ২০১১ সকল স্বত্ব সংরক্ষিত

Scroll to top