৫৫/বি (৩য় তলা), পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৯৫৬৭১৩০, ফ্যাক্স : ০২-৭১৬১০৮০

আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় ইসলামী আন্দোলনের ২টি ত্রাণ দলের আর্থিক সহযোগিতা

আম্ফানে দুর্গত এলাকা পরিদর্শন ও ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণের লক্ষ্যে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের দুইটি প্রতিনিধি দল রবিবার (৭ জুন) খুলনা ও সাতক্ষীরা ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় পরিদর্শন করে প্রায় দুই হাজার পরিবারকে আর্থিক সহযোগিতা করেছেন। ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর নায়েবে আমীর মাওলানা আব্দুল আউয়াল পীর সাহেব খুলনার নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার বিভিন্ন ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার মানুষের মাঝে নগদ অর্থ প্রদান করেন। এ প্রতিনিধি দলে ছিলেন দলের রাজনৈতিক উপদেষ্টা অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন, সাতক্ষীরা জেলা ইসলামী আন্দোলনের সভাপতি মাওলানা শামসুজ্জামানসহ মুজাহিদ কমিটির ছদর, শ্রমিক আন্দোলন, ছাত্র আন্দোলন, যুব আন্দোলন জেলা নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

 

দলের মহাসচিব প্রিন্সিপাল মাওলানা ইউনুছ আহমাদের নেতৃত্বে অপর একটি প্রতিনিধি দল খুলনা জেলার কয়রা উপজেলার বিভিন্ন ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শণ করে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে আর্থিক সহযোগিতা করেন। এ প্রতিনিধি দলে ছিলেন কেন্দ্রীয় অন্যতম সদস্য মাওলানা খলিলুর রহমান, শ্রমিকনেতা মুফতী মোস্তফা কামাল, মুজাহিদ কমিটির ছদর, শ্রমিক আন্দোলন, ছাত্র আন্দোলন, যুব আন্দোলন জেলা নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

মাওলানা আব্দুল আউয়াল পীর সাহেব খুলনা বলেছেন, অসহায়, দুর্গত ও মজলুম মানুষের সেবা করা আল্লাহর নির্দেশ। নবী করীম সা. বলেছেন,‘যে ব্যক্তি পেটভরে আহার করলো, অথচ তার আশেপাশের মানুষ অনাহারে রাত কাটালো, সে আমার উম্মত নয়’। বঞ্চিত ও নিপীড়িত মানুষের সেবা করা ইসলামের নির্দেশ। ইসলামী শাসন প্রতিষ্ঠিত না থাকায় মানুষ অসহায় জীবন যাপন করছে। কিন্তু ইসলাম রাষ্টীয়ভাবে প্রতিষ্ঠিত থাকলে কোন মানুষকে এভাবে অসহায় জীবন যাপন করতে হতো না। এজন্য ইসলামকে রাষ্টীভাবে বিজয় করতে সকলকে এগিয়ে আসতে হবে।

 

দলের মহাসচিব মাওলানা ইউনুছ আহমাদ বলেন, উপকূলীয় অঞ্চল খুলনা ও সাতক্ষীরা অঞ্চলে বেড়িবাঁধ নির্মাণে সীমাহীন দুর্নীতি হয়েছে। কোন রকম দায়সাড়া গুসের বেড়িবাঁধ নির্মাণ করে সব টাকা সরকার দলীয় লোকজন লুটপাট করে খেয়েছে। ফলে উপকূলীয় অঞ্চলে আম্ফানসহ ঘূর্ণিঝড়ে সীমাহীন ক্ষতির মুখোমুখি হতে হয় এসব অঞ্চলের মাুষের। তিনি বলেন, আম্ফানে দুগর্ত এলাকার ক্ষতিগ্রস্ত জনগণের পাশে দাড়ানোর সকলের মানবিক দায়িত্ব। ক্ষতিগ্রস্তদের সাহায্যে সমাজের বিত্তবানদেরকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। ইসলামী আন্দোলণ বাংলাদেশ যেকোন দুর্যোগে অসহায় মানুষের পাশে থাকার চেষ্টা করে যাচ্ছে।

শেয়ার করুন

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on facebook

অন্যান্য খেদমতে খালক, সামাজিক কার্যক্রম

Scroll to Top

সদস্য ফরম

নিচের ফরমটি পূরণ করে প্রাথমিক সদস্য হোন

small_c_popup.png

প্রশ্ন করার জন্য নিচের ফরমটি পূরণ করে পাঠিয়ে দিন